Breaking News
Home / Exception / বাড়িতে ইডলি বানানোর সহজ রেসিপি।

বাড়িতে ইডলি বানানোর সহজ রেসিপি।

দক্ষিণ ভারতীয় খাবারের মধ্যে ইডলি খুবই সুস্বাদু এবং সহজপাচ্য। সন্ধেবেলার জলখাবারে ২টো ইডলি খেলেই কিন্তু পেটটা অনেকক্ষণ ভরা থাকে। তবে এতদিন তো শুধু দোকান থেকে কিনেই খেতেন ইডলি। তবে আজ আপনাদের জন্য রইল বাড়িতেই ইডলি তৈরি করার সহজ রেসিপি।

ইডলি বানানোর রেসিপি স্টেপ বাই স্টেপ ইডলি বানাতে কম সময় লাগে। কিন্তু মূলত সময় যায় ইডলি বানানোর উপকরণ যোগান করে তা প্রসেস করতে।

উপকরণ কি কি লাগবে?
ইডলির চাল ৩ কাপ (বাজারে ইডলির বানানোর বিশেষ চাল কিনতে পাওয়া যায়। চালটি সাধারণত ছোট দানার মোটা হয়ে থাকে। তবে এমনিতে যেকোনও চালেই ইডলি বানানো যায়। কিন্তু এই বিশেষ চালে ইডলি ভালো তৈরি হয়।

বিউলি ডাল ১ কাপ (বিউলির ডালকে অনেকে মাসকড়াইয়ের ডাল নামেও চেনেন। এই ডালে কিন্তু খোসা থাকে না)।
মেথি দানা ২ চা চামচ ( মনে রাখবেন মেথি বেশি দিলে কিন্তু স্বাদ তেঁতো হতে পারে) ।

কি ভাবে বানাবেন? ব্যাটার বানাতে হবে প্রথমে প্রথমে চাল এবং ডাল খুব ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। যাতে এর থেকে ময়লা যা আছে তা বেরিয়ে যেতে পারে।

এরপর একটি বাটিতে দ্বীগুণ পরিমাণ জল নিয়ে তাতে চাল এবং ডাল ভিজিয়ে রাখতে হবে। ডালের সঙ্গে মেথিও ভিজিয়ে রেখে দিতে হবে চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা পর্যন্ত।

ভেজানো মেথি মেশানো ডাল মিক্সারে দিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এর জন্য ডালের সঙ্গে সামান্য পরিমাণে জল মিশিয়ে দিন, যাতে ডাল খুব ভালো করে পেস্ট করে নেওয়া যেতে পারে।

ডালের ব্যাটারটি যেহেতু খুব বেশি ঘন হবে না, একটু পাতলাই হবে, সেজন্য আর একটু জল মিশিয়ে আরও একবার মিক্সার ঘুরিয়ে নিন। এবার পেষাই করা ডাল একটি পাত্রে তুলে রেখে চাল পেষাই করে নিতে হবে।

মনে রাখবেন ডান যেমন একটা পাতলা ব্যাটার বানালেন, চালের ব্যাটার কিন্তু অতটাও পাতলা হবে না। একটু ঘন ব্যাটারই হবে। এবার ডাল এবং চালের ব্যাটার একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন।

ব্যাটারের ঘনত্ব পারফেক্ট রাখুন

সাধারণত ইডলি এবং ধোসার ব্যাটারের ঘনত্ব একই থাকে। তবে মনে রাখবেন যদি ধোসা বানাতে হয় তাহলে চালের ব্যাটার কিন্তু আরও পাতলা করতে হবে।
সেক্ষেত্রে ইডলি বানানোর সময় চালের ব্যাটারের ঘনত্ব একটু বেশি হবে। তবে দুক্ষেত্রেই ডালের ব্যাটার একইরকম থাকবে।

আরও স্পষ্ট করে বলতে গেল তিন কাপ চাল এক কাপ জলে পিষে নিন আর ১ কাপ ডাল এক কাপ জলে পিষে নিন। এবার চাল আর ডাল মিশিয়ে নেওয়ার পর যদি দেখেন ব্যাটার পাতলা হয়ে গিয়েছে তাহলে কিন্তু ইডলি তৈরি হবে না। সেক্ষেত্রে পেস্টটি একপ্রকার ঘনই রাখবেন। তবে ঘুব বেশি ঘন হয়ে গেলে অল্প পরিমাণে জল মেশাতে পারেন।

যদি গরমের দিন হয়, তাহলে এই মিশ্রণটিকে ঢেকে ১২ থেকে ১৪ ঘণ্টা রেখে দিন। আর যদি বর্ষার দিন বা অন্য কোনও সময় হয় তাহলে ২০ থেকে ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত রেখে দিন।

মনে রাখবেন গরমের দিনে এই ব্যাটার গেঁজিয়ে উঠতে বেশি সময় নেয় না বলে অল্প সময় রেখে দিলেই হয়। তবে বর্ষাকাল বা অন্যান্য সময় একটু বেশি সময় লাগে।

তবে কখনওই রেফ্রিজারেটারে রাখবেন না। তবে সময় যদি কম থাকে তাহলে মাইক্রোওভেন ২ মিনিটের জন্য প্রিহিট করে তার মধ্যেও মিশ্রণটি রেখে দিতে পারেন।
ওই গরমভাবেই জিনিসটা গেঁজিয়ে উঠবে। এবার এই ব্যাটারে সামান্য নুন মিশিয়ে একবার নাড়িয়ে নিন।

ইডলি মেকার

ইডলি বানানোর শেষ স্টেপ

এবার ইডলি মেকারে ঘি অথবা তেল মাখিয়ে নিন। এবার মিশ্রণটি হাতায় করে ঢেলে দিন। এবার প্রেশার কুকারে জল গরম করে নিয়ে তাতে ইডলি স্ট্যান্ডগুলি বসি দিন। প্রেশার কুকারের সিটি এইসময় খুলে দেবেন। এবার ৮ থেকে ১০ মিনিট রেখে নামিয়ে নিলেই নরম ইডলি তৈরি।

যদি বাড়িতে ইডলি মেকার না থাকে তাহলে ছোট ছোট বাটিতে ঘি অথবা তেল মাখিয়ে নিন। এবার মিশ্রণটি হাতায় করে ঢেলে দিন। তারপর বড় একটি বাটিতে জল হাফ ভরে তাতে ছোট বাটি রেখে ডেকে নিন। ভাপে সেদ্ধ হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে ১০ থেকে ১৫ মিনিট মত রাখুন।
রেডি আপনার ইডলি কোন রকমের ইডলি মেকার ছাড়াই। সাম্বার কিংবা চাটনির সঙ্গে পরিবেশন করুন গরম গরম ইডলি।

About admin

Check Also

আ’পসোস করতে না চাইলে ব’য়স ৩০ হওয়ার আগেই এই ৭টি কাজ করুন

আশেপাশে তাকিয়ে দে খু’ন, অনেক শেষ ব’য়সের মানুষের কাছে শুনতে পাবেন নানা আফসোসের কথা। অনেকেই ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Alert: Content is protected !!