Breaking News
Home / National / মাকে নিয়ে আসিফ নজরুলের আবেগঘন স্ট্যাটাস

মাকে নিয়ে আসিফ নজরুলের আবেগঘন স্ট্যাটাস

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুলের মায়ের চতুর্থ মৃ’ত্যুবার্ষিকী’ ছিল গত ১ মে। ওই দিন মাকে নিয়ে সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন তিনি।

স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে দেয়া হলো–

‘আমাদের ছিল অভাবের সংসার। অভাবী সংসারে কিছু কঠিন নিয়ম থাকে। আমাদেরও ছিল। যেমন- অ’তিরিক্ত মেধাবী হওয়ার কারণে ডিম পুরোটা পেত শুধু আমাদের বড় ভাই। আমাদের বাকি ভাইবোনের জন্য ডিম রান্না করা হতো ফেটে তরকারির মতো করে। কর্ন স্যুপের মতো। দেখতে লাল রঙের সেই তরকারি খুব প্রিয় ছিল আমাদের।

দুধের বেলায় নিয়ম ছিল আরও কড়া। দুধ পেত শুধু অ’সুস্থরা। অ’সুস্থ মানে মা আর আমা’র সবচেয়ে ছোট বোন।

ছোট বাসা। গো’পন বলে কিছু থাকে না। প্রায়ই শুনতাম আম্মা’র সঙ্গে আব্বার রাগারাগি। যে দুধ বরাদ্দ থাকত তার জন্য, তা তিনি দিয়ে দিতেন পাড়ার এক হতদরিদ্র মহিলাকে।

আমা’র মায়ের আরও নানা বৈশিষ্ট্য ছিল। যেমন- কারও উপার্জন নিয়ে স’ন্দেহ থাকলে তিনি তার থেকে কিছু খেতেন না। অ’সুখ-বিসুখে আমা’র এক মামাতো ভাই ফলমূল নিয়ে এলে তিনি তা কখনও স্প’র্শ করতেন না।

আমা’র সেই মায়ের চতুর্থ মৃ’ত্যুবার্ষিকী’ আজ। পৃথিবীতে সবার মা সেরা। আমা’র মা-ও। পৃথিবীতে সব সন্তান অ’পদার্থ, আমি আরও বেশি। আজ ভোরে যখন আকাশ ভেঙে বৃষ্টি এসেছিল, মনে হলো– শেষ দিনগুলোতেও মায়ের কাছে অল্প সময় থেকে চলে আসতাম। তিনি বলতেন- বাবারে আর তো পাবি না বেশি দিন।

মনে পড়ে আমা’র মায়ের রগ বের হওয়া শীর্ণ হাত, ঘষাকাচের কালো চশমা, সামনে ধ’রা পত্রিকা পড়ছেন খুটিয়ে খুটিয়ে। কিংবা চিরতরে চলে যাওয়ার পর তার চুপসে যাওয়া দেহ, আর সেই স্মিতহাস্য মুখ।

যাদের মা আছে, দিনরাত লেপ্টে থাকেন। প্রা’ণ ভরে সেবা করেন। মা চলে যাওয়ার পর তীব্র দুঃখ কিছুটা হয়তো কমবে তাতে। আমা’র মায়ের জন্য দোয়া করবেন।’

About admin

Check Also

অবশেষে গণপরিবহন চালু হচ্ছে যেদিন

সবকিছু ঠিক থাকলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী ১৭ মে থেকে সীমিত আকারে দেশে গণপরিবহন চালু হচ্ছে। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Alert: Content is protected !!